শ্রীপুরে সংবাদ প্রকাশের পর মহাসড়কে চাঁদাবাজি বন্ধের দাবি

সম্প্রতি শ্রীপুর পৌরসভার ইজারার কথা বলে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের মাওনা চৌরাস্তায় ফুটপাত থেকে রশিদ বিহীন চাঁদা নেওয়ার অভিযোগ উঠে। চলতি মাসের (২ মে) এ প্রসঙ্গে বিভিন্ন গণমাধ্যমে একটি অনুসন্ধানী খবর প্রকাশ হয়। ওই খবর প্রকাশের পর স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতাদের মধ্যে ভিন্ন প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। আজ চাঁদাবাজি বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ মিছিল করে স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ।

বুধবার ( ৫ মে ) বিকেল সাড়ে পাঁচটায় শ্রীপুর পৌর ৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ ও ৪ টি গ্রাম মহল্লা আওয়ামীলীগ এবং কমিউনিটি পুলিশের সদস্যবৃন্দ।

শ্রীপুর উপজেলা পরিবহন কমিউনিটি পুলিশের সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমানের সভাপতিত্বে, শ্রীপুর পৌর আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক জুয়েল মাহমুদ আসিফের পরিচালনায় চাঁদাবাজি বন্ধের দাবিতে বক্তব্য রাখেন, গাজীপুর জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম জাহিদ, ৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি খন্দকার আবুল কালাম, পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মাহবুবুল হক, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দুলাল উদ্দিন, ৮ নং ওয়ার্ড কমিউনিটি পুলিশের সভাপতি আব্দুস সাত্তার এমএ, সাধারণ সম্পাদক বোরহান উদ্দিন, ৮ নং ওয়ার্ড গ্রাম মহল্লা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলী আজগর, সিরাজ মিয়া, সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন জয়, শ্রমিকলীগ নেতা ফরিদ আহমেদ, শেখ আশরাফ, শাহাদাৎ হোসেন সাগর প্রমুখ।

চাঁদাবাজি - শ্রীপুরে সংবাদ প্রকাশের পর মহাসড়কে চাঁদাবাজি বন্ধের দাবি - সত্য ও নিরপেক্ষ সংবাদ
এ সময় পৌর আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক জুয়েল মাহমুদ আসিফ তার বক্তব্যে বলেন, শ্রীপুর পৌর কর্তৃপক্ষ মোটা অংকের ঘুষ গ্রহণ করে দুই বছর বন্ধ থাকা সড়ক ও জনপদের জায়গা ইজারা দিয়েছেন যা সম্পূর্ণ অবৈধ। গাজীপুর ৩ আসনের এমপি ইকবাল হোসেন সবুজ ভাইয়ের নির্দেশকে উপেক্ষা করে ইজারার নামে প্রকাশ্যে ফুটপাতে চাঁদাবাজি করছে যা বরদাস্ত করার মতো না। চাঁদাবাজি সম্পূর্ণভাবে বন্ধ হওয়ার আগ পর্যন্ত আমাদের এ প্রতিবাদ অব্যাহত থাকবে।

Advertisements