তাবিজের প্রলোভনে গৃহবধূকে ধর্ষণে

গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলার বাঘমারা গ্রামে তাবিজ দেওয়ার কথা বলে গৃহবধূকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে এক ভণ্ড কবিরাজকে আটক করেছে র‌্যাব-১।

বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) দুপুর দুইটায় উপজেলার বাঘমারা থেকে তাকে আটক করা হয়। ওই কবিরাজ শফিকুল ইসলাম (৩২) উপজেলার বাগমারা এলাকার মৃত জহিরুল হকের ছেলে।

গাজীপুর পোড়াবাড়ি ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, গত ৭ ফেব্রুয়ারি এক যুবতী (২০)কে তাবিজ দেওয়ার কথা বলে ধর্ষণ করে ভণ্ড কবিরাজ শফিকুল। ধর্ষণের বিষয়টি বাদী তার নিকটতম আত্মীয়-স্বজনের কাছে বলতে চাইলে শফিকুল তাকে মারধর করে এবং ভয়ভীতি প্রদর্শনসহ মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এরপর ভিকটিম গত ১০ ফেব্রুয়ারি গাজীপুর র‌্যাব-১ এর কার্যালয়ে এসে তার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এরই প্রেক্ষিতে তাকে আটক করা হয়।

তিনি আরও জানান, মো. শফিকুল ইসলাম একজন মুদি দোকানদার। ভিকটিমের সাংসারিক বনিবনা না হওয়ায় স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়াঝাটি হওয়ার বিষয়ে সে কবিরাজি চিকিৎসার মাধ্যমে তাবিজ দিয়ে ভুক্তভোগীর সংসারে শান্তি ফিরিয়ে দিবে বলে জানায়। ভুক্তভোগী সরল মনে শফিকুলের কথায় তাবিজ নিতে রাজি হয়।

পরে তাবিজ আনার জন্য গত (৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১) তার দোকানে যেতে বলে। দোকানে গেলে শফিকুল ভুক্তভোগীর পারিবারিক সমস্যা দূরীকরণের তাবিজ দেওয়ার কথা বলে ফুসলিয়ে দোকানের পেছনে তার রুমে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। ওই কবিরাজের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।