ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যের সিদ্ধান্ত পাল্টালো পাকিস্তান

ভারত থেকে পাকিস্তান চিনি এবং তুলা আমদানির যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিল তা পরিবর্তন করেছে। কাশ্মীর ইস্যুতে তেমন কোনো অগ্রগতি না হওয়ার মধ্যেই ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য শুরু করার সিদ্ধান্ত নেয়ার পর পাকিস্তান সরকার তুমুল সমালোচনার মুখে পড়ে এবং আমদানি বাণিজ্য স্থগিত করে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে সুস্থ হওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান আবার কাজে ফিরেছেন। গতকাল (বৃহস্পতিবার) কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন তিনি। ওই বৈঠকে আলোচনা করা হয় ভারত থেকে চিনি ও তুলা আমদানি করা হবে কিনা। পাকিস্তানের বিরোধীদল এবং কাশ্মীরি জনগণের পক্ষ থেকে কঠোর সমালোচনা সৃষ্টির পর কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যের সিদ্ধান্ত স্থগিত করে।

এ ঘটনায় মনে করা হচ্ছে পাক সরকার জনগণের চাপের মুখে আত্মসমর্পণ করতে বাধ্য হয়েছে। কাশ্মীর পরিস্থিতির অগ্রগতি ছাড়া ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য শুরু বিরুদ্ধে জনগণের বিরাট একটি অংশ।

দীর্ঘদিন ধরে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যকার উত্তেজনার কেন্দ্রবিন্দু হলো এই কাশ্মীর ইস্যু। দুই দেশই পুরো কাশ্মীরের মালিকানা দাবি করে। ২০১৯ সালের আগস্ট মাসে ভারত সরকার কাশ্মীরের স্বায়ত্ত্বশাসন বাতিল করার পর পাকিস্তান দিল্লির সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক হ্রাস করে। ভারতের ওই পদক্ষেপ কাশ্মীর পরিস্থিতি জটিল করেছে বলে পর্যবেক্ষক মহল মনে করে।

পার্সটুডে