এফএ কাপ চ্যাম্পিয়ন লেস্টার সিটি

ভিএআরের সিদ্ধান্ত শত্রু হয়ে দাঁড়ালো চেলসির জন্য। নয়ত ফলাফল অন্যরকম হতে পারত। তবে সৌভাগ্যের ঢালা খুলল লেস্টার সিটির পক্ষে।

প্রথমবারের মতো এফএ কাপের মুকুট পরল ব্রেন্ডেন রজার্সের দল। এর আগে চারবার প্রতিযোগিতাটির ফাইনালে উঠেছিল দলটি। প্রতিবারই রানারআপ হয়ে ঘরে ফিরতে হয়েছে তাদের। ১৯৬৯ সালে সবশেষ ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করেছিল লেস্টার।

৫২ বছর পর ফাইনালে উঠে শিরোপা হাতছাড়া করেনি ইংলিশ ক্লাবটি।

এবার সাউথ্যাম্পটনকে হারিয়ে ফাইনালে চেলসির মুখোমুখি হয় লেস্টার।

শিরোপার মঞ্চের খেলায় এক সময় মনে হয়েছিল পঞ্চমবারের মতো খালি হাতে ফিরবে রজার্সের শিষ্যরা।

বল দখল কিংবা আক্রমণ, সবখানেই আধিপত্য করেছে চেলসি। লেস্টারের লক্ষ্য বরাবর ১৩টি শট নেয় তারা। যার তিনটি ছিল লক্ষ্যে। কিন্তু কোনোটিকেই জালে প্রবেশ করাতে সক্ষম হয়নি তারা।

আর বিপরীতে লেস্টারের নেওয়া ছয়টি শটের একটি মাত্র লক্ষ্যে ছিল এবং সেটিই জাল কাঁপিয়ে দেয়।

ফলাফল চেলসিকে ১-০ গোলে হারিয়ে প্রথমবারের মতো এফএ কাপের শিরোপার স্বাদ ঘরে তুলল লেস্টার।

লেস্টারের পক্ষে একমাত্র জয়সূচক গোলটি করেছে ইউরি টিলেমানস। ম্যাচের ৬৩তম মিনিটে প্রায় ৩০ গজ দূর থেকে বুলেট গতির শটে চেলসির গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন বেলজিয়ান মিডফিল্ডার।

২০১৮ সালে চেলসির হয়ে এদেন আজার ও ২০১৯ সালে ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে কেভিন ডে ব্রুইনের পর তৃতীয় বেলজিয়ান হিসেবে এফর কাপের ফাইনালে গোল করলেন টিলেমানস।

তবে বল একবার জালে প্রবেশ করাতে পেরেছিল চেলসি। ৮৮তম মিনিটে বেন চিলওয়েলের শট ডিফেন্ডার ওয়েস মর্গ্যানের পায়ে লেগে জালে জড়ায়। সমতায় ফেরার উল্লাসে মাতে চেলসি শিবিরে। তবে খানিক পরই ভিএআরে সেই উল্লাস চুপসে যায়। ইংলিশ এই ডিফেন্ডার অফসাইডে ছিলেন। গোলটি বাতিল হয়।

বাকিটা সময় আর কোনো গোল না হয়ে ১-০ ব্যবধানের জয়ে শিরোপার স্বপ্ন পূরণ হয় লেস্টার সিটির।

সূত্রঃ যুগান্তর

Advertisements