ফরিদপুরে সড়ক দুর্ঘটনায়

পাবনা সদর উপজেলার তারিবাড়িয়া বাজার এলাকায় ট্রাকচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী বাবা-মেয়ের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছেন।

শুক্রবার (২ এপ্রিল) সকাল ১০টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আহত নাসরিন আক্তারকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনার পর বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ট্রাকটি আটক করে ভাঙচুর চালায়।

নিহতরা হলেন- পাবনার সদর উপজেলার চর আশুতোষপুর গ্রামের সলিম মোল্লার ছেলে আলমগীর হোসেন (৪০) ও তার মেয়েশিশু সিনহা (৬)।

এ ঘটনায় আলমগীরের স্ত্রী নাসরিন বেগমও (৩৪) গুরুতর আহত হয়েছেন। তাকে প্রথমে সুজানগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আলমগীর হোসেন তার স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে সকালে মোটরসাাইকেল যোগে মানিকগঞ্জে শশুরবাড়ির উদ্দেশে বের হন। সকাল সাড়ে ১০টা দিকে পাবনা-সুজানগর মহাসড়কের তারাবাড়িয়া হাটের কাছে পৌঁছে মহাসড়কের পাশে মোটরসাইকেল দাঁড় করিয়ে মোবাইল ফোনে কথা বলছিলেন তিনি। আর পাশে স্ত্রী ও মেয়ে দাঁড়িয়ে ছিল।

এ সময় বালু বহনকারী একটি ট্রাক (ঢাকা মেট্রো-ট-১৮-৯৭১৪) তাদের চাপা দিয়ে চলে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই আলমগীর হোসেন ও তার মেয়ে সিনহা নিহত হন। গুরুতর আহত হন নাসরিন বেগম।

পাবনা সদর থানার ওসি নাসিম আহম্মদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে যুগান্তরকে বলেন, ট্রাকটি জব্দ করা হয়েছে। চালক পালিয়ে গেছেন। তাকে আটকের চেষ্টা চলছে।

নিহত দুজনের মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।