তাইওয়ানকে

আসন্ন গণতন্ত্র সম্মেলনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন চীনা তাইপেকে যোগদানের জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। আগামী মাসে ভার্চুয়ালি এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের এই পদক্ষেপে চীন ক্ষুব্ধ হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। কারণ তাইওয়ানকে স্বাধীন দেশ হিসেবে স্বীকার করে না চীন বরং চীনা মূল ভূখণ্ডের অংশ মনে করে।

আসন্ন গণতন্ত্র সম্মেলনে ১১০টি দেশকে আমেরিকা আমন্ত্রণ জানিয়েছে যার মধ্যে চীন, রাশিয়া এবং তুরস্ক নেই। তুরস্ক হচ্ছে ন্যাটো সামরিক জোট জোটের অন্যতম সদস্য এবং আমেরিকার মিত্র দেশ।

গণতন্ত্রিক আদর্শ থেকে বিচ্যুত না হওয়া, মানবাধিকার রক্ষা এবং দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের নামে এই সম্মেলন করা হচ্ছে বলে আমেরিকা দাবি করছে। বিশ্বব্যাপী এসব ইস্যুর উন্নয়ন ঘটনার ব্যাপারে জো বাইডেন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময় প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন।

তাইওয়ানকে আমন্ত্রণ জানানোর ঘটনা এই সম্মেলনের ব্যাপারে সৃষ্ট সবচেয়ে বিতর্কিত বিষয় বলে মনে করা হচ্ছে। তাইওয়ান নিয়ে চীন এবং আমেরিকার মধ্যে যখন মারাত্মক উত্তেজনা চলছে তখন তাইপেকে গণতন্ত্র সম্মেলনে আমন্ত্রণ জানানোর বিষয়টি প্রকাশ্যে এলো। আমেরিকা বলছে, তারা তাইওয়ানের সার্বভৌমত্ব রক্ষার ব্যাপারে প্রয়োজনে চীনের হামলা মোকাবেলা করতে প্রস্তুত রয়েছে। অন্যদিকে, চীন বলছে তাইওয়ান চীনের অংশ এবং চীনের সাথেই থাকবে।

Advertisements