কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় শ্রীপুরে দশম শ্রেণির ছাত্রীকে অপহরণ

গাজীপুরের শ্রীপুরে কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় দশম শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রীকে স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে জোর করে তুলে নিয়ে গেছে এক যুবক। এ ঘটনার পর ভুক্তভোগী স্কুল শিক্ষার্থীর মা বাদী হয়ে তিনজনকে আসামি করে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

শনিবার (২০ নভেম্বর) বিকাল তিনটার দিকে উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নের হয়দেবপুর গ্রামে ওই ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী স্কুল শিক্ষার্থীর বাড়ি পাশ্ববর্তী ময়মনসিংহ জেলার ভালুক উপজেলায়। অভিযুক্তরা হলো, শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নের হয়দেবপুর গ্রামের ইন্নছ আলী খানের ছেলে মো. নাজমুল খান, একই গ্রামের মৃত মৌলদ খানের ছেলে ইন্নছ আলী খান ও মো. রনি খান।

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গতকাল রোববার আড়াইটার দিকে স্কুল ছাত্রী বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। হয়দেবপুর গ্রামের জৈনক সেলিম খানের বাড়ি সামনে পৌঁছা মাত্রই অভিযুক্ত যুবক নাজমুল খান তাঁর সহযোগিদের নিয়ে স্কুল ছাত্রীর পথ রোধ করে জোর পূর্বক একটি সাদা রঙের গাড়িতে তুলে নিয়ে যায়। দশম শ্রেণির তাঁর এক সহপাঠী জানায়, তাঁর সেলিম খানের বাড়ি পৌঁছা মাত্র, আগেই দাঁড়িয়ে থাকা কয়েকজন ছেলে জোর করে ভুক্তভোগী স্কুল ছাত্রীকে প্রাইভেট গাড়িতে জোর করে তুলে নিয়ে যায়। এসময় সে অভিযুক্ত নাজমুল খানকে বাঁধা দেয়। কিন্তু তাতে অভিযুক্তরা মানেনি। এরপর ডাক চৎকার শুরু করে। ততক্ষণে অভিযুক্তরা তাঁকে নিয়ে চলে যায়।

স্কুল ছাত্রীর মা জানান, দীর্ঘ সময় ধরে স্কুলে আসা যাওয়ার পথে অভিযুক্ত যুবক মেয়েকে উত্যক্ত করে আসছে এবং কুপ্রস্তাব দিয়েছিল। এবিষয়ে স্কুল কতৃপক্ষ এমনকি অভিযুক্ত যুবকের পরিবারকে জানানো হয়েছে। কিন্তু তাতেও ওরা কোন ভূমিকা পালন করেনি। তিনি আরও জানান, বর্তমানে আমার মেয়ে কি অবস্থায় আছে আমি জানি না। আমার মেয়ের ওরা বড় ক্ষতি করবে। প্রশাসনের মাধ্যমে দ্রুত সময়ের মধ্যে আমার মেয়েকে ফিরে পেতে চায়।

অভিযুক্ত ইন্নছ আলী খান মুঠোফোন বলেন, বর্তমানে আমার ছেলে কোথায় আছে আমার জানা নেই। কোন মেয়েকে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি সঠিক নয়। তবে মেয়ের স্বজনরা আমার বাড়িতে এসে জানায় তাদের মেয়েকে নাকি আমার ছেলে জোর করে তুলে নিয়ে গেছে। এর বেশি কিছু আমি জানি না।

স্কুলেের প্রধান শিক্ষক মজিবুর রহমান খান বলেন, রবিবার স্কুল ছুটির পর ভুক্তভোগী স্কুল ছাত্রী ক্লাস করে স্কুল থেকে বেড়িয়ে যায়। স্কুল ছুটির পর তাঁকে কেউ তুলে নিয়েছে এবিষয়ে ঐ শিক্ষার্থীর অবিভাবক জানিয়েছে।

শ্রীপুর থানার উপপরিদর্শক এসআই নাজমুল হক বলেন, স্কুল শিক্ষার্থীকে অপহরণের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে রওনা হয়েছি। ঘটনাস্থলে গিয়ে ভিকটিম উদ্ধারের সকল ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি খোন্দকার ইমাম হোসেন বলেন, অপহরণের বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগ পাওয়ার পরপরই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্ত শেষে ভিকটিম উদ্ধারসহ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।

Advertisements