ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা

আবারও ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া। এটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র বলে ধারণা করছে দক্ষিণ কোরিয়া। চলতি সপ্তাহে এ নিয়ে দ্বিতীয় ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালালো দেশটি।

এর আগে গত বুধবার আরেকটি ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানো হয়। সেটি ছিল হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র। আজকের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার খবর দিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া।

তারা বলেছে, স্থানীয় সময় আজ সকাল ৭টা ২৭ মিনিটে উত্তর কোরিয়া থেকে ছোড়া এই ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র শনাক্ত করা গেছে। জাপানের কোস্টগার্ডও ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার বিষয়টি দেখেছে জানিয়ে বলেছে, উত্তর কোরিয়া ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের মতো দেখতে একটা বস্তু উৎক্ষেপণ করেছে।

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং–উন ২০২২ সালের নীতিগত অগ্রাধিকারের অংশ হিসেবে দেশের প্রতিরক্ষা জোরদার করার অঙ্গীকার করেন। গত ডিসেম্বরে একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকের সময় এই রূপরেখা দেওয়া হয়েছিল।

নতুন বছরে দেওয়া এক ভাষণে কিম জং-উন বলেন, পিয়ংইয়ং প্রতিরক্ষা ক্ষমতা আরও শক্তিশালী করার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবে।

কোরিয়া উপত্যকায় অস্থিতিশীল সামরিক পরিবেশের কারণে পিয়ংইয়ং প্রতিরক্ষা ক্ষমতা বাড়াতে চায় বলেও জানান। এরপরই দুটি ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানো হলো। এর ফলে দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে।

পার্সটুডে

Advertisements